বিশ্লেষণে ফিরে যান
বিশ্লেষণী

ভয় ও লোভ সূচক

English
English
Bahasa Indonesia
Bahasa Indonesia
Deutsch
Deutsch
हिन्दी
हिन्दी
বাংলা
বাংলা

বাইনারি অপশনস ট্রেডাররা মনে করেন যে আবেগ হল প্রতিটি বিনিয়োগকারীর সবচেয়ে খারাপ শত্রু। এটি সাধারণত সত্যি কিন্তু তাতে একটি ব্যতিক্রমও আছে। আপনার আবেগকে কীভাবে আপনার সুবিধা নিতে ব্যবহার করা যাবে তা জানতে পড়তে থাকুন।

বিনিয়োগের ব্যারোমিটার

প্রথাগতভাবে বাইনারি অপশনস ট্রেডিং -কে মনে করা হয় বিনিয়োগের সরল প্রকার। কয়েকটি বিষয়ের জন্য সেটি সত্যি, কিন্তু প্রথমে দেখে যাই মনে হোক এটি কিন্তু ততটা সহজ নয়।

যদিও স্টক মার্কেটে ভয় ও লোভ পরিমাপ করার অনেক পদ্ধতি আছে, সবচেয়ে পুরানো পদ্ধতি হল VIX বা CBOE ভোলাটিলিটি ইন্ডেক্স যা প্রকাশ করেছে শিকাগো বোর্ড অপশনস এক্সচেঞ্জ। VIX-এর এক ও একমাত্র উদ্দেশ্য হল ওয়াল স্ট্রিট-এর ভয় এবং লোভ মাপকের মেন্টিমেন্ট অনুপাত বিশ্লেষণ করা।

FGI বা ভয় ও লোভ সূচক -কে পরিমাপ করার অন্য উপায়, যা তৈরি করেছে CNN মানি, বিনিয়োগকারীর প্রাথমিক আবেগ পরীক্ষা করে। আপনি জীবনধারণের জন্য যাই কাজ করুন না কেন, আপনি সেটিতে দৈনন্দিন জীবনে অভ্যস্ত হয়ে যান। ভালো বা মন্দ, যাই হোক, ভয় ও লোভ হল আর্থিক জগত শাসনকারী।

তাই, ঠিক কীভাবে CNN সেটি পরিমাপ করে? ভয় ও লোভ সূচক-এর ভিত্তি হল 7টি আলাদা আলাদা বিষয়, যাতে বিনিয়োগকারীর সেন্টিমেন্টের মোট স্কোর দেওয়া হয় 0 থেকে 100 (ভয় থেকে লোভ ক্রমানুসারে)। এই বিষয়গুলির মধ্যে আছে:

  • বাজারের গতি - S&P 500 এবং তার 125-দিনের মুভিং অ্যাভারেজ।
  • সেফ হেভেন চাহিদা - স্টক থেকে ও ট্রেজারি থেকে লাভের তফাতের উপর ভিত্তি করে।
  • স্টকের দামের শক্তি - স্টকের সংখ্যা যা 52-সপ্তাহ উচ্চ তে পৌঁছায় এবং স্টকের সংখ্যা যা 52-সপ্তাহ নিম্নে পৌঁছায় NYSE (নিউ ইয়র্ক স্টক এক্সচেঞ্জ) -এ।
  • স্টকের দামের প্রসার - চড়তে থাকার তুলনায় পড়তে থাকা স্টকের ট্রেডিং পরিমাণ।
  • পুট এবং কল অপশন - পুট/কল অনুপাতের উপর ভিত্তি করে।
  • জাঙ্ক বন্ড চাহিদা - যেমন তাকে পরিমাপ করা হয় বিনিয়োগ স্তরের বন্ড এবং জাঙ্ক বন্ডের লাভের স্প্রেড দ্বারা।
  • বাজারের অস্থিরতা - যেমন পরিমাপ করে CBOE ভোলাটিলিটি ইন্ডেক্স (VIX)।

এই 7টি সূচকের গড় তৈরি করে ভয় ও লোভ সূচক।

Fear & Greed

কীভাবে এটি কাজ করে?

আর্থিক বাজার 2টি শক্তিশালী আবেগ চালায়: ভয় এবং লোভ। উভয় আবেগগুলিই মানুষের প্রকৃতিকে বর্ণনা করে, সত্যি বলতে কি, তাদের সাথে প্রেমের অনেক মিল আছে। উদাহরণস্বরূপ, লোভের কাছে এই ক্ষমতা আছে যে সে আমাদের মস্তিষ্কে রাসায়নিক ঢেউ পাঠায় যার কারণে আমাদের সাধারণ বুদ্ধি ও আত্ম-নিয়ন্ত্রণের সুরক্ষা কবচ সরে যায়।

একটি খুব জনপ্রিয় উদাহরণ যা সঠিকভাবে লোভের ক্ষমতা প্রদর্শন করে - সেটি হল জট-কম বাবল। এটি ঘটেছিল 1990-এর শেষের দিকে যখন ইন্টারনেট স্টার্টআপগুলি নতুন জনপ্রিয়তা পাচ্ছিল এবং সবাই এমন কোম্পানিতে বিনিয়োগ করতে চাইছিল যার “ডট কম” ডোমেইন আছে। অবসম্ভাবীভাবে, লোভে অন্ধ বিনিয়োগকারীরা দেখতে পাচ্ছিলেন না যে সিকিউরিটিগুলির অতিরিক্ত দাম হয়েছে এবং বাবল আগেই তৈরি হয়ে গেছে।

এখনকার দিনে, অভিজ্ঞ ট্রেডাররা মনে করেন ভয় ও লোভ সূচক হল এক প্রকারের সিগন্যাল যা দেখায় বাজারের সম্ভাব্য টার্নিং পয়েন্ট। এটি ঠিক কীভাবে কাজ করে? যদি বিনিয়োগকারীরা লোভী হয়, তাহলে কি স্টকের দাম বাড়বে। কিন্তু বিপরীতটা ঘটে, তারা ভয় পায় যে দাম পড়ে যাবে। অন্যভাবে বলতে গেলে, বিনিয়োগকারীরা কেনে যখন সূচক 50-এর উপরে থাকে এবং বিক্রি করে যখন তার নিচে সূচক পড়ে যায়।

যদিও এই সূচকের উপর (বা একই প্রকারের অন্য কিছুর উপর) একমাত্র নির্ভর করা ঠিক নয়, ভয় ও লোভ সূচক আপনার স্টক ট্রেডিং কৌশলের একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ হতে পারে।

আন্তরিকভাবে আপনার,
আইরেক্স টিম
ট্রেডিং শুরু করুন